সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার দাবি


Shikkha Songbad প্রকাশের সময় : অক্টোবর ৫, ২০২৩, ৭:০৩ পূর্বাহ্ণ /
সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার দাবি
0Shares

এমপিও নীতিমালার শর্ত শিথিল করে স্বীকৃত সব নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে একযোগে এমপিওভুক্তির দাবি জানিয়েছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে ‘নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারী পরিষদ’ এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানায়।

লিখিত বক্তব্যে সংগঠনের আহ্বায়ক অধ্যাপক মো. দবিরুল ইসলাম বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ২০২১ সালে বলেছিলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি একটি চলমান প্রক্রিয়া। প্রতি বছর এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন নেওয়া হবে। কিন্তু দুঃখের বিষয় ২০২২ সালে কোনো আবেদন নেওয়া হয়নি। ২০২৩ সালেও আবেদন নেওয়ার কথা ছিল কিন্তু এখন পর্যন্ত তা নেওয়া হচ্ছে না। ২০২৩ সালে যদি আবেদন না নেওয়া হয় তাহলে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাবে। কারণ দীর্ঘ ২০-২৫ বছর ধরে বিনা বেতনে কেউ চাকরি করতে পারেন না।

তিনি বলেন, গত ১৪ আগস্ট শিক্ষামন্ত্রী নিজ নির্বাচনী এলাকা চাঁদপুরে নন-এমপিও শিক্ষকদের অমানবিক কষ্টের কথা চিন্তা করে বিশেষ বিবেচনায় দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করেছেন। আমরা মনে করি, বাংলাদেশের সব নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অভিভাবক শিক্ষামন্ত্রী। তাই নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের সীমাহীন কষ্টের কথা চিন্তা করে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এমপিও নীতিমালা ২০২১ এর সব শর্ত শিথিল করে বিশেষ বিবেচনায় স্বীকৃতিপ্রাপ্ত চলমান সব নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান একযোগে এমপিওভুক্ত করে আপনার সরকারের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের দাবি জানাচ্ছি।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী পরিষদের সদস্য সচিব অধ্যক্ষ মো. মনিমুল হক, যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান, অধ্যক্ষ ইমরান বিন সোলায়মান, মো. জহুরুল ইসলাম রাজু, এরশাদুল হক, অধ্যক্ষ বাকিবুল্লাহ, ফরহাদ হোসেন বাবুল, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যক্ষ শাহজাহান সিরাজ, হাবিবুর রহমান বাবুল, বাবুল আক্তার, নাঈম হোসেন, সুপার তরিকুল ইসলাম, প্রভাষক নুরুল আমিন নওয়াব, খায়রুল ইসলাম, প্রভাষক শামসুন্নাহার, প্রধান শিক্ষক মো. জসিম উদ্দিন খান প্রমুখ।

এর আগে একই দাবিতে সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী পরিষদ। মানববন্ধন শেষে শিক্ষামন্ত্রী বরাবরে দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি পেশ করা হয়।

0Shares