ঢাবির গার্হস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২৩ সেপ্টেম্বর


শিক্ষা সংবাদ প্রকাশের সময় : জুলাই ২৯, ২০২২, ৮:৪৩ অপরাহ্ণ / ৩০১
ঢাবির গার্হস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২৩ সেপ্টেম্বর

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) গার্হস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটে ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা হবে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর। ওই দিন সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত পরীক্ষা নেওয়া হবে।

শুক্রবার (২৯ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান অনুষদের সংবাদ বিজ্ঞপ্তি এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ভর্তির জন্য আগামী ২ সেপ্টেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে অনলাইনে (collegeadmission.eis.du.ac.bd) আবেদন করতে হবে।

আবেদনকারীকে ২০১৬ সাল থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে মাধ্যমিক বা সমমানের এবং ২০২১ সালের বাংলাদেশের শিক্ষা বোর্ডসমূহ/উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের যেকোনো শাখায় উচ্চ মাধ্যমিক অথবা কারিগরি/মাদ্রাসা বোর্ড/এ-লেভেল বা সমমানের বিদেশি ডিগ্রিধারী হতে হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের গ্রেডভিত্তিক পরীক্ষায় ৪র্থ বিষয়সহ প্রাপ্ত জিপিএর যোগফল ন্যূনতম ৫.৫ হতে হবে। কোনো পরীক্ষায় জিপিএ ২.৫০-এর নিচে হলে তা গ্রহণযোগ্য হবে না।

ভর্তির আবেদন ফি বাবদ ৭০০ টাকা তাৎক্ষণিক অনলাইনে মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস (বিকাশ/নগদ/রকেট ইত্যাদি) বা ডেবিট/ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে বা চারটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকে (সোনালী, জনতা, অগ্রণী ও রূপালী) নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে জমা করা যাবে। আবেদন ও ফি জমার বিষয়ের বিস্তারিত নির্দেশনাবলী ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

ভর্তি পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে হবে। ১০০টি প্রশ্নের জন্য মোট নম্বর হবে ১০০। ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে অনুসৃত পাঠ্যসূচি অনুযায়ী হবে। প্রত্যেক প্রার্থীকে বাংলা ও ইংরেজি এবং দুটি নৈর্বাচনিক বিষয়সহ মোট চারটি বিষয়ের প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। প্রতি বিষয়ের জন্য মোট নম্বর ২৫।

ঢাবির গার্হস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটের অধীনে গর্ভনমেন্ট কলেজ অব অ্যাপ্লাইড হিউম্যান সায়েন্স কলেজে ১ হাজারটি, বাংলাদেশ গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজে ৫৫০টি, ন্যাশনাল কলেজ অব হোম ইকনোমিক্সে ৫৫০টি, ময়মনসিংহ গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজে ১০০টি, আকিজ কলেজ অব হোম ইকনোমিক্স ২৭৫টি এবং বরিশাল হোম ইকনোমিক্স কলেজ ১৮০টি আসন আছে।

গার্হস্থ্য অর্থনীতিতে স্নাতকের (সম্মান) নির্ধারিত বিষয়গুলো হলো—খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান (শুধু বিজ্ঞান শাখার জন্য), বস্ত্র, পরিচ্ছদ ও বয়ন শিল্প (শুধু বিজ্ঞান শাখার জন্য), সম্পদ ব্যবস্থাপনা ও এন্টারপ্রেনরশিপ, শিশু বিকাশ ও সামাজিক সম্পর্ক, শিল্পকলা ও সৃজনশীল শিক্ষা।