সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটিতে ২০২০-২১ ভর্তি শুরু, আছে স্কলারশিপ সহ উচ্চশিক্ষার সুযোগ

0
90
বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুন : ০১৭১৭১২৪৬৪৬

সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটি বা দক্ষিণ এশিয় বিশ্ববিদ্যালয় (এসএইউ) হল দক্ষিণ এশিয়া আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থার (সার্ক) আট সদস্য রাষ্ট্র দ্বারা মনোনীত একটি আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়। আটটি দেশ হলো: আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, মালদ্বীপ, নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলংকা। সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ২০১০ সালে ভারতের আকবর ভবনের একটি অস্থায়ী ক্যাম্পাসে ছাত্র ভর্তি শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম শিক্ষাবর্ষ আগস্ট ২০১০ সালে অর্থনীতি এবং কম্পিউটার বিজ্ঞান এই দুটি স্নাতকোত্তর একাডেমিক প্রোগ্রামের দ্বারা শুরু হয়েছিল। সার্কের আট দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দ্বারা স্বাক্ষরিত একটি আন্তঃসরকার চুক্তির ভিত্তিতে সকল সদস্য দেশ দ্বারা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রীগুলি স্বীকৃত। দক্ষিণ এশীয় বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রধানত আটটি সার্কভুক্ত দেশ থেকে শিক্ষার্থীদের আকর্ষণ করে, যদিও অন্যান্য মহাদেশের শিক্ষার্থীরাও এখানে ভর্তি হয়। শিক্ষার্থীদের ভর্তিতে সদস্য দেশের জন্য কোটা ব্যবস্থা রয়েছে। প্রতি বছর দক্ষিণ এশীয় বিশ্ববিদ্যালয়টি আটটি সদস্য দেশের একাধিক কেন্দ্রে ভর্তির পরীক্ষা পরিচালনা করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, জি কে চড্ডা ১ মার্চ ২০১৪ সালে মারা যান। দক্ষিণ এশিয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখ্য উপদেষ্টা পদে, যখন বিশ্ববিদ্যালয়টি (এসইউ) একটি প্রকল্প পর্যায়ে ছিল, এবং পরবর্তীকালে এর সভাপতি পদে যোগদানের পূর্বে তিনি প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ছিলেন। তিনি নিউ দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর হিসেবেও কিছুদিন কর্মরত ছিলেন। শুরুতে মাত্র দুটি বিভাগ নিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করলেও বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে সাতটি বিভাগে মাস্টার্স ও পিএইচডি পর্যায়ে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। বিভাগগুলো হচ্ছে— ১. কম্পিউটার সাইন্স, ২. বায়োটেকনোলজি, ৩. ফলিত গণিত, ৪. অর্থনীতি, ৫. আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, ৬. আইন, ৭. সমাজবিজ্ঞান। ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি আবেদন শুরু হয়েছে। চলবে আগামী ১৪ মার্চ ২০২০ পর্যন্ত।

আবেদনের যোগ্যতা :

সংশ্লিষ্ট বিষয়ে স্নাতক সম্পন্নকারী শিক্ষার্থীরা স্নাতকোত্তর পর্যায়ে পড়াশোনার জন্য আবেদন করতে পারবে। স্নাতক চূড়ান্ত পর্বের শিক্ষার্থী কিংবা ফল প্রত্যাশীদের জন্যও রয়েছে সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটিতে ক্লাস শুরুর আগে চূড়ান্ত ফল প্রকাশের শর্তে আবেদনের সুযোগ। স্নাতকোত্তর পর্যায়ে আবেদন করার জন্য বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের স্নাতক পর্যায়ে শতকরা ৫৫ ভাগ মার্ক বা ৪ স্কেলে ২.৭৫ সিজিপিএ থাকতে হবে। অন্যান্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রয়োজন শতকরা ৫০ ভাগ মার্ক বা ৪ স্কেলে ২.৫০ সিজিপিএ।

পিএইচডি পর্যায়ে আবেদন করার জন্য আবেদনকারীকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করতে হবে। স্নাতকোত্তর চূড়ান্ত পর্বের শিক্ষার্থীদের জন্যও রয়েছে আবেদনের সুযোগ। পিএইচডিতে আবেদনের জন্য বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর উভয় পর্যায়ে শতকরা ৫৫ ভাগ মার্ক বা ৪ স্কেলে ২.৭৫ সিজিপিএ থাকতে হবে। অন্যান্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রয়োজন শতকরা ৫০ ভাগ মার্ক বা ৪ স্কেলে ২.৫০ সিজিপিএ। বিস্তারিত জানা যাবে নিচের লিঙ্কে- http://sau.int/admissions/admission-notice.html

আবেদনের প্রক্রিয়া :

সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটির আবেদন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ অনলাইনভিত্তিক। কিছু নির্দিষ্ট তথ্য দিয়ে নিচের লিঙ্ক থেকে অনলাইনে আবেদন করা যাবে— https://admissions.sau.int/। অনলাইনে আবেদন করার পর আবেদন ফি ১০ ডলার বা সমপরিমাণ টাকা পরিশোধ করে আবেদন নিশ্চিত করতে হবে।

ভর্তি পরীক্ষা :

একই দিনে সার্কভুক্ত প্রতিটি দেশে একই সময়ে অভিন্ন প্রশ্নপত্রে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে মেধার ভিত্তিতে শিক্ষার্থী বাছাই করা হয়। সংশ্লিষ্ট বিষয়ের স্নাতক পর্যায়ের সিলেবাস থেকে প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করা হয়ে থাকে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ভর্তি পরীক্ষার সিলেবাস ও নমুনা প্রশ্নপত্র পাওয়া যাবে। বাংলাদেশে ঢাকা ও চট্টগ্রামে দুটি কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আবেদনের সময় সুবিধামত কেন্দ্র সিলেক্ট করা যাবে।

আসন সংখ্যা :

প্রতি শিক্ষাবর্ষে স্নাতকোত্তর পর্যায়ে প্রতিটি বিভাগে ৩০ জন এবং পিএইচডি পর্যায়ে ছয় জন করে শিক্ষার্থী নেওয়া হয়ে থাকে। স্নাতকোত্তর পর্যায়ে শতকরা ৫০ ভাগ সিট ভারতীয় শিক্ষার্থীদের জন্য সংরক্ষিত। আফগানিস্তান, ভুটান, মালদ্বীপ, নেপাল ও শ্রীলঙ্কার শিক্ষার্থীদের জন্য চার ভাগ, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের শিক্ষার্থীদের জন্য ১০ ভাগ এবং অন্যদের জন্য বাকি ১০ ভাগ সিট সংরক্ষিত। পিএইচডি পর্যায়ে শতকরা ৫০ ভাগ সিট ভারতীয় শিক্ষার্থীদের জন্য এবং বাকি ৫০ ভাগ অন্যদের জন্য বরাদ্দ।

স্কলারশিপ :

স্নাতকোত্তর পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটিতে চার ক্যাটাগরিতে স্কলারশিপ প্রদান করা হয়—প্রেসিডেন্ট স্কলারশিপ, সার্ক সিলভার জুবিলি স্কলারশিপ, মেরিট স্কলারশিপ এবং ফ্রি-শিপ। প্রতিটি স্কলারশিপে পড়াশোনা, থাকা ফ্রি এবং সেই সঙ্গে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণে স্টাইপেন্ড প্রদান করা হয়।

পিএইচডি পর্যায়ের প্রতিটি শিক্ষার্থীর জন্য পড়াশোনা ও থাকা ফ্রি। সেই সঙ্গে মাস শেষে ২৫ হাজার রুপি প্রদান করা হয়। এর বাইরে নিজ খরচে সাউথ এশিয়ান ইউনিভার্সিটিতে পড়তে হলে প্রতি সেমিস্টারে গুণতে হবে ৪৪০ ডলার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here